আসন্ন রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনীত হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে তার পক্ষে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আবুল কাশেমসহ অন্যান্য নেতারা।

এর আগে বুধবার দুপুরে দলের পক্ষ থেকে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য ও সাবেক সংসদ সদস্য হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়াকে নৌকার মনোনয়ন দেওয়া হয়।

তার পূর্বে বর্তমান মেয়র ও জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের রংপুর মহানগরের সাধারণ সম্পাদক আমিরুজ্জামান পিয়াল, জামায়াতে ইসলামীর রংপুর মহানগরের সাবেক আমির মাহাবুবার রহমান বেলাল, স্বতন্ত্র হিসেবে জাতীয় শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ মজিদ, ব্যবসায়ী মেহেদী হাসান বনি, খোরশেদ আলম ও আব্দুর রউপ মানিক মনোনয়নপত্র নিয়েছেন।

২০১২ সালে পৌরসভার ১৫টি ওয়ার্ডের সঙ্গে বর্ধিত এলাকার সাবেক সদর উপজেলার কয়েকটি ইউনিয়ন থেকে আরও ১৮টি ওয়ার্ড যুক্ত করে মোট ৩৩টি ওয়ার্ড নিয়ে রংপুর সিটি করপোরেশন গঠন করা হয়। ঐ বছরের ২০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত সিটি করপোরেশনের প্রথম নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী সরফুদ্দিন আহমেদ ঝণ্টু মেয়র হিসেবে নির্বাচিত হন।

এছাড়া ২০১৭ সালের ২১ ডিসেম্বর দ্বিতীয় নির্বাচনের সময় ভোটার ছিল ৩ লাখ ৯৩ হাজার ৯৯৪ জন। এতে জাতীয় পার্টির প্রার্থী মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা মেয়র নির্বাচিত হন।

এবার তৃতীয়তম রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। বর্তমানে এই সিটির জনসংখ্যা প্রায় ১০ লাখ। আর ভোটার রয়েছেন প্রায় চার লাখেরও বেশি।

নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ২৯ নভেম্বর। ১ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র বাছাই এবং ৮ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ তারিখ। প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হবে পরের দিন ৯ ডিসেম্বর। প্রতীক বরাদ্দ দেওয়ার পর প্রার্থীরা ১৭ দিন প্রচার-প্রচারণার সুযোগ পাবেন। ২৭ ডিসেম্বর সকাল সাড়ে ৮টা থেকে বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত একটানা ভোটগ্রহণ করা হবে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম)।